মওলানা ভাসানীর ভবিষ্যৎবাণী


মওলানা ভাসানী হঠাৎ হঠাৎ দুই-একটা ব্যাপারে ভবিষ্যৎবাণী করতেন এবং তা বিস্ময়করভাবে ফলে যেত। এরকম একটা ফলেছিল তাঁর মৃত্যুর পর।

আইয়ুববিরোধী সর্বদলীয় আন্দোলনের সময় মওলানা ভাসানী বলতেন, "আমি আওয়ামী লীগ ( তখন তিনি ন্যাপ করতেন ) সহ বিভিন্ন দলের সঙ্গে জোট বেঁধে আন্দোলন করতে পারি কিন্তু জামায়াতে ইসলামীর সাথে থাকব না। যে জোটে জামায়াত আছে, সেই জোটে আমার ন্যাপ থাকবে না। জামায়াত মার্কিন সাম্রাজ্যবাদীদের এজেন্ট।"

জামায়াতে ইসলামী ভাসানীর বক্তব্যে ক্রুদ্ধ ছিল। ১৯৭০ সালে মওলানা ভাসানী পশ্চিম পাকিস্তান সফরে গেলে শাহীওয়াল রেলস্টেশনে জামায়াতে ইসলামীর গুন্ডারা ভাসানীর ওপর আক্রমন করে। কোমল পানীয় বোতল দিয়ে তাঁকে আঘাত করা হয়। ন্যাপ সমর্থকদের প্রতিরোধে তিনি অল্পের জন্য রক্ষা পান।

পশ্চিম পাকিস্তান থেকে এসে মওলানা ঘরোয়া আলোচনায় একাধিকবার বলেছেন, "জামায়াত নেতা সাইয়েদ আবুল আলা মওদুদী একজন আমেরিকার লোক। সে সিআইএর একজন বিশ্বস্ত ব্যক্তি । অন্য কোনো দেশে নয়, মওদুদী মারা যাবে আমেরিকায়।"

১৯৭২ সালে ন্যাপ নেতা সাইদুল হাসানের বাড়িতে আলোচনায় এক কর্মী জিজ্ঞেস করেন, "হুজুর, মওদুদীর আমেরিকায় মারা যাওয়ার ব্যাপারে আপনি কেমনে ভবিষৎবাণী করলেন?" ভাসানী বললেন "শুন মিয়া, তুমরা লিক্ষা রাখ - মওদুদী মারা যাইবে আমেরিকায়।" সেদিন অনেকেই মনে করেছিল, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হওয়াতে ওটা হয়তো মওলানার আক্রোশমূলক ব্ক্তব্য অথবা কথার কথা ।

ভাসানীর মৃত্যুর তিন বছর পর সাইয়েদ আবুল আলা মওদুদী ১৯৭৯ সালে আমেরিকাতে মারা যান।

Comments

Popular posts from this blog

How strong is Myanmar's military?

বিমান দুর্ঘটনা

পঁচাত্তরের নভেম্বরঃ নাগরদোলায় অনৈক্য,বিভক্তি ও সংঘাত (প্রথম পর্ব)